নাইক্ষ্যংছড়িতে এক নারীকে তুলে নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ।

খবরটি শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

এম.হাবিবুর রহমান রনিঃ বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড হলুদ্যাশিয়া গ্রামের বদিউল আলম (৬০) এর মেয়ে সুমিনা আক্তার (১৯) কে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে।
ঘটনাটি ঘটেছে, গত শুক্রবার ১৫ই মার্চ রাত আনুমানিক ৯টার দিকে রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের হাজীর পাড়া গ্রামের মোঃ ইদ্রিসের পুত্র শাহাব উদ্দীন (২৬) তার কয়েকজন সহযোগিদের নিয়ে সুমিনা আক্তারকে তার নিজ বাড়ি হতে জোর পূর্বক উঠিয়ে নিয়ে যায়। যাহা আমি সাথে সাথে বাইশারী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে লিখিত অভিযোগ দাখিল করিলে, ইদ্রিসের পুত্র শাহাব উদ্দিনসহ অন্যান্য সহযোগিরা ক্ষিপ্ত হইয়া আমাকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি প্রদান করিতেছে।
এ ব্যাপারে সাবেক ইউপি সদস্য নুর মোহাম্মদ (পুতন) বলেন, ঘটনা শুনার সাথে সাথে এলাকা গণ্যমান্য ব্যক্তিদেরকে নিয়ে ইদ্রিসের বাড়িতে ছুটে যায় এবং মেয়েকে তার বাড়িতে দেখতে পায়। মেয়েকে চলে আসা কথা বললে, ইদ্রিস আমার সাথে অকথ্য ভাষা ব্যবহার করেন। যার কারণে আমি আশংখা করতেছি যে মেয়েকে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন করছে।
এই প্রতিবেদক ইদ্রিসের নিকট জানতে চাইলে, আমার ছেলে বিয়ে করার জন্য বাড়িতে নিয়ে এসেছে ইসলামী নিয়ম মোতাবেক বিবাহের ব্যবস্থা করা হবে।
বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ একে.এম. মোঃ হাবিবুল ইসলামের কাছে ঘটনাটি জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনাটি সত্য এবং অভিযোগ ভিত্তিতে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply