খাগড়াছড়ি মানিকছড়িতে ভাংচুর,আগুন

খবরটি শেয়ার করুন বন্ধুদের সাথে

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধিঃ ট্রাক, জীপ ভাংচুর, মোটর সাইকেলে আগুন, ড্রাইভারকে মারধোর, রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে ও গাছ ফেলে পিকেটিং-এর মধ্য খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ সমর্থিত তিন পাহাড়ি সংগঠনের ডাকে খাগড়াছড়িতে সকাল-সন্ধ্যা সড়ক অবরোধ চলছে।
প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী কর্তৃক অপহৃত হিল উইমেন্স ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মন্টি চাকমা ও রাঙামাটি জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক দয়া সোনা চাকমার মুক্তি দাবীতে খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ সমর্থিত তিন সংগঠন এ সড়ক অবরোধের ডাক দেয়।
অবরোধ শুরুর আগে সকাল পৌনে ৬টার দিকে জেলার মানিকছড়ির কর্মসূচী চলাকালে সড়ক অবরোধকারীরা আজ সকাল মানিকছড়ি জামতলা (পিচলাতলা) এলাকায় চট্টগ্রাম থেকে আসা বিআরটিসির চট্টমেট্টো-ট ১১-১৩৫২ ট্রাক গাড়ীটি ভাংচুর করে পিকেটাররা। এ ঘটনায় আহত হয় গাড়ীর চালক ড্রাইভার মোঃ আবুল কাশেম (৪৫)।
তিনি জানান, গাড়ী নিয়ে খাগড়াছড়ির উদ্যেশ্যে রওনা হলে জামতলা(পিচলাতলা) এলাকায় তার গাড়ীতে ইট মারতে থাকে। এসময় গাড়ী দাঁড় করালে তাকে মারধর ও গাড়ীটি সম্পূর্ন ভেঙ্গে ফেলে। আহত ড্রাইভার মানিকছড়ি হাসপাতালে চিকিৎসারত আছে।
মানিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আব্দুর রশিদ জানান, ট্রাকটি চট্টগ্রাম থেকে চাউল নিয়ে খাগড়াছড়ি আসার পথে ওই স্থানে হামলার শিকার হয়।
এদিকে, লক্ষ্মীছড়ি জোন সদর হতে ৬ কিঃমিঃ পশ্চিমে মংহ্লাপাড়া নামক স্থানে রাস্তার উপরে অবরোধকারীরা টায়ারে আগুন দেয় এবং ১ টি জীপ গাড়ির গ্লাস ভেঙ্গে দেয়।
এছাড়া মাটিরাঙ্গা সদর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি প্রবীন বিকাশ মেম্বার এর মোটর সাইকেল পুড়িয়ে দিয়ছে এবং মারধর করে সন্ত্রাসীরা পুলিশের সামনে রাস্তায় আগুন দিচ্ছে, পুলিশ তামাশা দেখতেছে।
সকাল থেকে অবরোধের সমর্থনে বিভিন্ন সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে ও গাছ ফেলে পিকেটিং করতে দেখা গেছে ইউপিডিএফ’র নেতাকর্মীদের।
অবরোধের কারণে সকালে পুলিশ প্রহরায় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা নৈশ কোচগুলো শহরে প্রবেশ করলেও জেলার আভ্যন্তীরণ ও দুর পাল্লার যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা টহল দিচ্ছে।
উল্লেখ্য, গত রোববার (১৮ মার্চ) রাঙামাটি সদর উপজেলার কুদুকছড়ির আবাসিক এলাকা থেকে এ দুই নারী নেত্রীকে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায়। এ সময় সন্ত্রাসীদের গুলিতে গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের রাঙামাটি জেলা আহ্ববায়ক ধর্মশিং চাকমা পায়ে গুলিবিদ্ধ হয়।
এ ঘটনার প্রতিবাদে প্রসীত খীসা নেতৃত্বাধীন ইউপিডিএফ সমর্থিত তিন সংগঠন গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও হিল উইমেন্স ফেডারেশন যৌথভাবে এ এ অবরোধ কর্মসূচি ঘোষণা করে।

Leave a Reply